,
শিরোনাম:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভাগ্নে-ভাগ্নিকে হত্যার দায়ে মামার মৃত্যুদন্ড ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কোটা আন্দোলনকারীদের সাথে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ – ওসিসহ আহত-২০ , ককটেল বিস্ফোরণ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কোটা আন্দোলনকারীদের সাথে ছাত্রলীগের ধাওয়া পালটা ধাওয়া \ বেশ কয়েকজন আহত, ককটেল বিস্ফোরণ নবীনগরে তিন শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ নান্দনিক আবৃত্তির মধ্য দিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া মাতিয়ে গেলেন ভারতের আবৃত্তি সংস্থা শ্রুতি সালিশ সভায় চেয়ারম্যানের নির্দেশে নারীকে নির্যাতন বিজয়নগরে বর্তমান ও সাবেক ইউপি সদস্য গ্রেপ্তার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচার বিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস পালিত জনপ্রতিনিধিদের ক্ষমতার পরিধির মধ্যে থেকে এলাকার উন্নয়নে কাজ করতে হবে- গণপূর্ত মন্ত্রী বৃক্ষায়নের জায়গা না রেখে নতুন বাড়ি বা ভবন নির্মাণের অনুমতি দেয়া হবে না- গণপূর্ত মন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদক কারবারের বিরোধে নারীকে হত্যা, গ্রেফতার ৩

আশুগঞ্জ সদর ইউপি চেয়ারম্যান নিরাপত্তাহীন, অপরাধীদের সঙ্গে ওসির সখ্যতার অভিযোগ

Brahmanbaria Ashugang pic 1
মোজাম্মেল চৌধুরী :  ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ সালাহ উদ্দিন নিজের এবং পরিবার-পরিজনের জীবন নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। ফেসবুকে পোষ্ট দিয়ে এবং সরাসরি তাকে  হুমকি দেয়ার ঘটনায় পুলিশ প্রয়োজনীয় ব্যব¯া না নেয়ায় এই অব¯ার সষ্টি হয়েছে বলে শনিবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে অভিযাগ করেন তিনি।  আশুগঞ্জ প্রেসক্লাবে হওয়া সংবাদ সম্মেলনে তাকে হুমকী প্রদানকারীদের সঙ্গে থানার ওসির সখ্যতা থাকার অভিযোগও করেন সালাউদ্দিন।  বলেন এতে তিনি চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।
মোঃ সালাহ উদ্দিন জানান, গত ৪ ও ৭ জুলাই তারেক সিকদার ও  এস. এম. মৃদুল নামে ফসবুক আইডি থেকে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা, বানোয়াটি, মনগড়া ও মানহানিকর কথা লিখা হয়। এ ঘটনায় গত ৬ জুলাই তিনি আশুগঞ্জ থানায় অভিযাগ দায়ের করেন। কিন্তু গত পাঁচদিনেও ওসি অভিযোগটি মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করেননি। এছাড়া ওই দুইজন প্রকাশ্যে হুমকি দিল এ বিষয়ে থানায় সাধারণ ডায়রি (জিডি) করলেও পুলিশ তার নিরাপত্তা বিষয়ে কোনো ব্যব¯া নেয়নি।
আশুগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জাবেদ মাহমুদ জানান, ফেসবুকে পোস্ট ও হুমকির ঘটনায় দায়ের করা অভিযোগের বিষয় তদÍ করতে আদালতের অনুমতি চেয়েছেন তারা । আদালতের অনুমতি অনুযায়ী আইনী ব্যব¯া নেয়া হবে।
শেয়ার করুন

Sorry, no post hare.