,
শিরোনাম:
Police Clearence Certificate (PCC)- পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট আবেদনের সঠিক নিয়ম ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তিভিত্তিক দুদিনব্যাপী কৃষক প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন ১০ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর সচল হল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার গ্যাস সরবরাহ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় সরকারি কর্মকর্তা নিহত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রেনের ধাক্কায় বাবা নিহত মেয়ে আহত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুকুর থেকে পলিথিনে মোড়ানো নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষ। অর্ধশতাধিক আহত, আটক ২০ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত আওয়মীলীগ ছাড়া ডান পন্ত্রী কোন রাজনৈতিক দল নারীর ক্ষমতায়নে বিশ্বাস করে না..গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী…. ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পূর্ব বিরোধের জেরে দুই গোষ্ঠির মধ্যে সংঘর্ষ, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাট ,আটকঃ ৪

আড়াই মাস বন্ধ থাকার পর চালু হল ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশন

খবর সারাদিন রিপোর্ট : অবশেষে আড়াই মাস বন্ধ থাকার পর চালু হয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেল স্টেশন। হেফাজতের হরতালকালে ক্ষতিগ্রস্থ রেলওয়ে স্টেশনটির মর্যাদা অবদমিত করে ‘ডি ক্লাসের স্টেশন হিসেবে কার্যক্রম শুরু করেছে রেলওয়ে। আপাতত গার্ড ও ট্রেন চালকের সমন্বয়ে সনাতন পদ্ধতিতে চলছে ট্রেন। সে সাথে প্রাথমিক রেললাইন সংস্কারের কাজও শুরু হয়েছে। দীর্ঘ ৮০ দিন পর এই স্টেশনটিতে ট্রেন যাত্রা বিরতী করায় স্বস্তি এ পথে চলাচলকারনী যাত্রীদের মাঝে। তারা দাবী জানিয়েছে দ্রুত সংস্কার শেষে স্টেশনটিকে পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে নেয়ার। সরজমিন গিয়ে দেখা যায়, মর্যাদা অবদমিত করে হলেও ৫ জোড়া ট্রেনের যাত্রা বিরতীর মধ্যদিয়ে দীর্ঘ দিন পর আবারো প্রান ফিরে পেয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশন। যাত্রা বিরতীর খবরে স্বস্তি ফিরে আসে পূর্বাঞ্চলের গুরুত্বপূর্ণ এ স্টেশন দিয়ে চলাচলকারী যাত্রীদের মাঝে। সকালে তিতাস কমিউটার ট্রেনের যাত্রা বিরতীর মধ্যদিয়ে ধ্বংস স্তূপে পরিণত হওয়া এই স্টেশনটিতে আবারো প্রানচাঞ্চল্য ফিরে আসে। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ জানায়, গত ২৬ মার্চ নরেন্দ্র মোদীর সফরকে ঘিরে হেফাজতের বিক্ষোভ চলাকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশনে হামলা, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের শিকার হয়। এতে প্যানেল বোর্ডসহ সিগন্যালিং ব্যবস্থা অকার্যকর হয়ে পড়ায় স্টেশনটিতে সব ধরণের ট্রেনের যাত্রাবিরতী বাতিল করা হয়। এতে দুর্ভোগে পড়ে যাত্রীরা। সে সাথে গত ২ মাস ২০ দিনে অন্তত আড়াই কোটি টাকার রাজস্ব ক্ষতি হয়। দুর্ভোগে লাঘবে সাময়িকভাবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশনকে ‘ডি ক্লাস’ স্টেশনে রূপান্তর করে ট্রেন চালু করার সিদ্ধান্ত নেয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার থেকে সুরমা মেইল, ময়মনসিংহ এক্সপ্রেস, তিতাস কমিউটার ও কর্ণফুলী কমিউটার ট্রেন যাত্রাবিরতি করছে। আগামীকাল বুধবার ১৬ জুন থেকে নিয়মিত যাত্রাবিরতি করবে ঢাকা-সিলেট রেলপথে চলাচলকারী আন্তঃনগর পারাবত এক্সপ্রেস। সিগন্যালিং ব্যবস্থা ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় তালশহর ও পাঘাচংয়ের মাধ্যমে লাইন ক্লিয়ারিং এর কাজ চলবে।
স্টেশন মাষ্টার সোয়েব মিয়া জানান, সিগন্যালিং ব্যবস্থা ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় গার্ড এবং ট্রেন চালকের সমন্বয়ে ট্রেনে যাত্রী উঠানামা করছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে সিগন্যালিং ব্যবস্থা মেরামত করা হবে।

 

শেয়ার করুন

Sorry, no post hare.