,
শিরোনাম:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কোটা আন্দোলনকারীদের সাথে ছাত্রলীগের ধাওয়া পালটা ধাওয়া \ বেশ কয়েকজন আহত, ককটেল বিস্ফোরণ নবীনগরে তিন শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ নান্দনিক আবৃত্তির মধ্য দিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া মাতিয়ে গেলেন ভারতের আবৃত্তি সংস্থা শ্রুতি সালিশ সভায় চেয়ারম্যানের নির্দেশে নারীকে নির্যাতন বিজয়নগরে বর্তমান ও সাবেক ইউপি সদস্য গ্রেপ্তার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচার বিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস পালিত জনপ্রতিনিধিদের ক্ষমতার পরিধির মধ্যে থেকে এলাকার উন্নয়নে কাজ করতে হবে- গণপূর্ত মন্ত্রী বৃক্ষায়নের জায়গা না রেখে নতুন বাড়ি বা ভবন নির্মাণের অনুমতি দেয়া হবে না- গণপূর্ত মন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদক কারবারের বিরোধে নারীকে হত্যা, গ্রেফতার ৩ আখাউড়া থানার হাজত কক্ষের গ্রিল ভেঙে পালিয়ে যাওয়া আসামি ফের গ্রেপ্তার৷ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শ্বাসরোধ করে কন্যাশিশুকে হত্যা করলো মা

তিতাসের বুকভরা ঢেউ আর প্রাণভরা উচ্ছাসে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তিতাস নদীতে ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত

Brahmanbaria Pic 01 1 1 scaled

খবর সারাদিন রিপোর্ট:তিতাসের বুকভরা ঢেউ আর প্রাণভরা উচ্ছাসে আনন্দমুখর পরিবেশে রোববার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত হয়।
তিতাস নদীর পৌর এলাকার শিমরাইল কান্দি গাঁওগ্রাম পয়েন্ট থেকে প্রতিযোগীতা শুরু হয়ে পৌর এলাকার মেড্ডা সরকারি শিশু পরিবার পর্যন্ত (প্রায় দেড় কিলোমিটার) নদীতে প্রতিযোগীতা শেষ হয়।

প্রতিযোগীতায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া, হবিগঞ্জ ও কিশোরগঞ্জ জেলার ১৩টি নৌকা অংশ নেয়। এর মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও হবিগঞ্জ জেলার ছয়টি করে এবং কিশোরগঞ্জ জেলার একটি নৌকা ছিলো।

দুপুর ৩টায় পৌর এলাকার শিমরাইলকান্দি গাঁওগ্রাম পয়েন্টে প্রধান অতিথি হিসেবে নৌকা বাইচ উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র.আ.ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী।

প্রতিযোগিতায় সদর উপজেলার আবদুল আলীর নৌকা প্রথম, সদর উপজেলার জাকির হোসেনের নৌকা দ্বিতীয় এবং আশুগঞ্জের মোঃ সেলিম মিয়ার নৌকা তৃতীয় স্থান অধিকার করে। তবে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় হওয়া তিনটি নৌকাই হবিগঞ্জ জেলা থেকে ভাড়া করা।

বিকেলে মেড্ডা সরকারি শিশু পরিবার পয়েন্টে পুরষ্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র.আ.ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী।

জেলা প্রশাসক মোঃ শাহগীর আলমের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান ও পৌর মেয়র মিসেস নায়ার কবির। অনুষ্ঠানে জেলার বিভিন্ন দপ্তরের শীর্ষ কর্মকর্তারা, রাজনীতিবিদসহ সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে র.আ.ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি বলেন, যতদিন এই তিতাসে জল থাকবে ততদিনই তিতাসে নৌকা বাইচের আয়োজন হবে। তিনি বলেন, ধর্মান্ধতাকে পেছনে ফেলে নৌকা বাইচের আয়োজন করায় তিনি সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

প্রতিযোগীতায় প্রথম হওয়া নৌকাকে ১ লাখ টাকা, দ্বিতীয় হওয়া নৌকাকে ৬০ হাজার ও তৃতীয় হওয়া নৌকাকে ৩০ হাজার টাকা দেয়া হয়।
এদিকে নৌকা বাইচ উপলক্ষে দুপুরের পর থেকে শহর, আশপাশ এলাকা ও জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে লোকজন এসে তিতাসের দুইপাড়ে এসে জড়ো হয়।

হাজারো মানুষের উপস্থিতিতে উৎসবমুখর পরিবেশের সৃষ্টি হয় তিতাস পাড়ে।
দারাজ বাংলাদেশ, বাংলাদেশ গ্যাস ফিল্ডস কোম্পানি লিমিটেড ও ইউনিভার্সেল মেডিকেল সার্ভিসেস লিমিটেড নৌকা বাইচ আয়োজনে সার্বিক সহযোগিতা করে।

 

শেয়ার করুন

Sorry, no post hare.