,
শিরোনাম:
বিএনপি তাদের শাসনামলে যুদ্ধাপরাধী ও রাজাকার আলবদরদের সঙ্গে নিয়ে পাকিস্তানের দালাল হয়ে বাংলাদেশের জনগণকে শোষণ ও অত্যাচার করত : আইন মন্ত্রী আনিসুল হক ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ম্যারাথন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় টিসিবির পণ্য বিক্রয় মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রমের গুরুত্ব ব্যাপক উপজেলা পরিষদের নির্বাচন আখাউড়ায় নির্বাচনী সভায় ভুড়িভোজের আয়োজন \ বিরিয়ানি মাদরাসায় দিলেন ম্যাজিস্ট্রেট ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মোটরসাইকেল ও সিএনজি অটোরিক্সার মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত-১/ আহত-৫ এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল-জিপিএ-৫-এ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় সেরা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আসামী ধরতে গিয়ে নারীর কপালে পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করল ডিবি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগের কর্মী সমাবেশ চলাকালে সংঘর্ষে ৩ জন আহত স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনের লড়াইয়ে ছাত্রলীগকে সর্বতোভাবে পাশে থাকার আহ্বান-গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রসূতির কোলজুড়ে এলো একসাথে ৪ সন্তান 

Brahmanbaria children pic
খবর সারাদিন রিপোর্টঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিয়ের ১০ বছর পর একই সাথে ৪ সন্তান প্রসব করেছেন রিপা বেগম (২৩) নামের এক প্রসূতি। সোমবার রাতে জেলা শহরের জেলরোডস্থ লাইফ কেয়ার শিশু ও  জেনারেল হাসপাতালে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক শারমিন সুলতানার তত্ত্বাবধানে নবজাতক গুলো প্রসব করে। রিপা জেলার বিজয়নগর উপজেলার ইছাপুর ইউনিয়নে ধীতপুর গ্রামের কৃষক সাগর আলীর স্ত্রী।
নবজাতক গুলোর মধ্যে ১টি ছেলে ও বাকী ৩টি মেয়ে। গাইনি ও প্রসূতি বিদ্যা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক শারমিন সুলতানা জানান, প্রসূতি এর আগে একটি শিশু প্রসবের সময়ই মারা যায়। এরপর প্রথম থেকেই আমার তত্ত্বাবধানে নিয়মিত চিকিৎসাধীন ছিলেন। বিকেলে প্রসব ব্যাথা উঠলে তাকে পরিবারের সদস্যরা হাসপাতালে নিয়ে আসে। প্রথমে তাকে নরমাল ভাবে প্রসবের চেষ্টা করা হয়।
নরমালে সে একটি শিশু প্রসব করার পর তার আর লেভার পেইন বাড়েনি। পরবর্তীতে সিজারিয়ান করে বাকী তিনটি শিশুকে প্রসব করা হয়। আল্ট্রাসনোগ্রাফিতে এসেছিল গর্ভে ৩টি শিশু, কিন্তু আমার ধারণা ছিল ৪টি হবে। অবশেষে আল্লাহতালার রহমতে তা ই হলো। মা ও শিশুরা সবাই ভাল আছে।
৪ নবজাতকের পিতা সাগর আলী বলেন, ‘আমি বিদেশে থাকতাম। পরবর্তীতে দেশে ফিরে কৃষি কাজ করি। দীর্ঘদিন বাচ্চা নেওয়ার চেষ্টা করিনি।
পরে গত ২ বছর আগে আমার স্ত্রী গর্ভবতী হয়ে প্রসবের সময় একটি বাচ্চা মারা যায়। বিয়ের দীর্ঘ ১০ বছর পর এখন ৪টি বাচ্চা দেখে আমার হৃদয় জুড়িয়ে গেল, তাতে আমি অনেক খুশি।’
ডাক্তার শারমিন সুলতানা জানান, বর্তমানে মা ও শিশুগুলো সুস্থ রয়েছে। তবে ওজন কম হওয়ায় শিশুগুলোকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শিশু হাসপাতালে ইনকিউভেটরে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।
শেয়ার করুন

Sorry, no post hare.