,
শিরোনাম:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে পূর্ব বিরোধের জের ধরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক লোক আহত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিভিন্ন ট্রেনের টিকেটসহ পাঁচ কালোবাজারি আটক, প্রায় অর্ধলক্ষ টাকা জব্দ আপেক্ষিক অর্থে বলা হয়েছে ৫০ বছর সময় লাগলেও সুষ্ঠ তদন্ত ও প্রকৃত অপরাধীদের ধরা হবে..ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইনমন্ত্রী৷ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গণসংবর্ধণার জবাবে গণপূর্ত মন্ত্রী মোকতাদির চৌধুরী এমপি মজুদদারদের জরিমানা নয়, কারাগারে পাঠানোর অনুরোধ জানাই ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদক সেবন করে অশ্লীল আচরন করায় সাতজনকে কারাদন্ড অবৈধভাবে খাল কাটা ও ব্যক্তিগত রাস্তা নির্মানের প্রতিবাদে বিজয়নগরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল বাঞ্ছারামপুরে পুকুরে মিললো কিশোরের হাত-পা বাধাঁ লাশ৷ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির উদ্যোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শীতার্ত মানুষের মধ্যে ৮০০ কম্বল বিতরণ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে চুরি করার অপবাদে যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিলের জমি থেকে অটো চালকের মরদেহ উদ্ধার

এক মামলায় জামিন পেয়ে জেল থেকে বের হওয়ার আগেই দিচ্ছে আরেক মামলা 

খবর সারাদিন রিপোর্টঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় একের পর এক মিথ্যা মামলা ও গ্রেফতারকৃদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবীতে মানববন্ধন করেছে অন্তত ২০টি ভূক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা।
মঙ্গলবার  দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানবন্ধনে ভূক্তভোগী পরিবারের সদস্যদের সাথে স্থানীয় এলাকাবাসী অংশগ্রহন করেন।
এ সময় বক্তব্য রাখেন মোছাম্মত সেলিনা খাতুন, জায়েদা বেগম, শামীমা বেগম, কিরণ বেগম প্রমূখ।
পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ২০১৬ ও ২০২১ সালে স্থানীয় ক্ষমতাসীন দলের সাথে হেফাজতের সহিংসতার ঘটনায় ৫৭টি মামলা রজু হয়। মামলায় নির্দিষ্ট সময়মত চার্জশীট দেয়ার আইনী বাধ্যবাধকতা থাকলেও দীর্ঘ দিনেও অনেক মামলার চার্জশীট দেয়া হয়নি। চার্জশীট না দিয়ে অনেককেই বিনা বিচারে আটক রেখেছে।
তারা আরো বলেন, একটি মামলায় জামিন হওয়ার সাথে সাথে অন্যায়ভাবে জেলগেটেই আরেকটি মামলায় শ্যেন এরেস্ট দেখিয়ে মাসের পর মাস তাদের জেল হাজতে আটকে রাখা হচ্ছে। এতে আটককৃত পরিবারের সদস্যরা দুর্বিষহ জীবন যাপন করছে।
এ সময় তারা দুর্বিষহ অবস্থার কথা বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন এবং  ভিডিও ফুটেজ দেখে প্রকৃত হামলাকারীদের সনাক্ত করে এবং নিরীহ ব্যক্তিদের মুক্তির দাবী জানিয়ে প্রশাসনের কাছে দাবী জানান।
এই বিষয়ে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমরানুল ইসলাম বলেন, অভিযুক্তদের অভিযোগ গুলো তদন্তের পর মন্তব্য করা যাবে। বিষয় আমরা তদন্ত করবো।
ওয়েব ডিজাইন ঘর

Sorry, no post hare.