,
শিরোনাম:
আপেক্ষিক অর্থে বলা হয়েছে ৫০ বছর সময় লাগলেও সুষ্ঠ তদন্ত ও প্রকৃত অপরাধীদের ধরা হবে..ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইনমন্ত্রী৷ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গণসংবর্ধণার জবাবে গণপূর্ত মন্ত্রী মোকতাদির চৌধুরী এমপি মজুদদারদের জরিমানা নয়, কারাগারে পাঠানোর অনুরোধ জানাই ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদক সেবন করে অশ্লীল আচরন করায় সাতজনকে কারাদন্ড অবৈধভাবে খাল কাটা ও ব্যক্তিগত রাস্তা নির্মানের প্রতিবাদে বিজয়নগরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল বাঞ্ছারামপুরে পুকুরে মিললো কিশোরের হাত-পা বাধাঁ লাশ৷ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির উদ্যোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শীতার্ত মানুষের মধ্যে ৮০০ কম্বল বিতরণ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে চুরি করার অপবাদে যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিলের জমি থেকে অটো চালকের মরদেহ উদ্ধার ৯৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ সরাইলে যুবক গ্রেপ্তার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে সাবেক এমপির গাড়িবহরে হামলা

আখাউড়া স্থলবন্দরে সাংবাদিকদের সাথে আসাম বিধান সভার স্পীকার বিশ্বজিৎ দাইমারি আমরা ভৌগলিক ও মনের দিক থেকে আলাদা হইনি

খবর সারাদিন রিপোর্টঃভারতের আসাম রাজ্যের বিধানসভার ৩৫ জন বিধায়কসহ ৬২ জনের একটি প্রতিনিধি দল  শনিবার বাংলাদেশে এসেছেন। সকাল ১০টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থল বন্দর দিয়ে তারা পর্যায়ক্রমে বাংলাদেশে প্রবেশ করেন।
আসামের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক বাড়াতেই তারা শুভেচ্ছা সফরে ঢাকায় এসেছেন। বাংলাদেশের সংসদীয় ব্যবস্থাসহ বিভিন্ন বিষয়ে জানবেন তারা।

আখাউড়া স্থলবন্দরে প্রতিনিধি দলকে স্বাগত জানান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) প্রণয় চাকমা, ত্রিপুরাস্থ বাংলাদেশ হাই কমিশনের হাই কমিশনার আরিফ মোহাম্মদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোল্লা মোহাম্মদ শাহীন, আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) অংগ্যজাই মারমা, সহকারি পুলিশ সুপার (কসবা সার্কেল) কামরুল ইসলাম প্রমুখ।

আখাউড়া স্থল বন্দরে আসাম বিধায়ক প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বদানকারী বিধান সভার স্পীকার বিশ্বজিৎ দাইমারি সাংবাদিকদের বলেন, আমরা ভৌগলিক ও মনের দিক থেকে আলাদা হইনি। আমরা আলাদা শুধু প্রশাসনিকভাবে। অন্যান্য ক্ষেত্রে আমাদের মধ্যে মিল রয়েছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ঢাকা সফরকালে বিধান সভার সদস্যরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাত করবেন।

এছাড়াও তারা জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. এ.কে আবদুল মোমেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সাথেও বৈঠক করবেন।

এছাড়াও প্রতিনিধি দলের সদস্যরা বাংলাদেশের রাঙামাটি জেলার একটি গ্রামে যাবেন, যেখানে অসমিয়া জনগোষ্ঠীর লোকজন বসবাস করেন। প্রতিনিধিদলে একটি সাংস্কৃতিক দলও আছে। তারা বেশ কয়েকটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেও অংশ নেবেন।পরে প্রতিনিধিদলটি খাগড়াছড়ি জেলায় গিয়ে বোড়ো জনগোষ্ঠীর লোকদের সাথে মতবিনিময় ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন। সফর শেষে আগামী ২৩ নভেম্বর প্রতিনিধিদলটি ঢাকা ছাড়বে।

ওয়েব ডিজাইন ঘর

Sorry, no post hare.