,
শিরোনাম:
বিএনপি তাদের শাসনামলে যুদ্ধাপরাধী ও রাজাকার আলবদরদের সঙ্গে নিয়ে পাকিস্তানের দালাল হয়ে বাংলাদেশের জনগণকে শোষণ ও অত্যাচার করত : আইন মন্ত্রী আনিসুল হক ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ম্যারাথন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় টিসিবির পণ্য বিক্রয় মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রমের গুরুত্ব ব্যাপক উপজেলা পরিষদের নির্বাচন আখাউড়ায় নির্বাচনী সভায় ভুড়িভোজের আয়োজন \ বিরিয়ানি মাদরাসায় দিলেন ম্যাজিস্ট্রেট ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মোটরসাইকেল ও সিএনজি অটোরিক্সার মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত-১/ আহত-৫ এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল-জিপিএ-৫-এ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় সেরা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আসামী ধরতে গিয়ে নারীর কপালে পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করল ডিবি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগের কর্মী সমাবেশ চলাকালে সংঘর্ষে ৩ জন আহত স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনের লড়াইয়ে ছাত্রলীগকে সর্বতোভাবে পাশে থাকার আহ্বান-গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী

রেলওয়ের জলশায় অবৈধভাবে ভরাটের প্রতিবাদে এলাকাবসীর মানববন্ধন

IMG 20230507 WA0032

খবর সারাদিন রিপোর্ট :ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রেলওয়ের জলাশয়ে অবৈধভাবে বালু ভরাট করায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ করেছে স্থানীয় এলাকাবাসী। গতকাল রবিবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার বড় হরন এলাকার স্থানীয় শতাধিক এলাকাবাসী এই মানববন্ধন করেন। মাবনবন্ধনে অংশ নেওয়া স্থানীয়রা জানান, আশিকুল ইসলাম ও উম্মেদ গংসহ এলাকার কিছু ভূমিদস্যু রেল লাইনের জলাশয়ের জায়গা লিজ নেওয়ার কথা বলে প্রকাশ্যেই ভেকু মেশিন দিয়ে বালু ফেলে ভরাট করছেনে। এতে স্থানীয় লোকজনের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। তারা আরও জানান, সরকারি রেলওয়ের জায়গা লিজ নেওয়ার নাম করে ভূমিদস্যুরা যেন জলাশয় ভরাট করতে না পারে। সে বিষয়ে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষন করেন তারা। এসময় এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন, নাটাই দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান সদস্য বেলাল মিয়া, আমেনা বেগমসহ এলাকার গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ। মানববন্ধনে এলাকার শতাধিক নারী পুরুষ অংশগ্রহণ করেন। স্থানীয়রা জানান, আশিকুল ইসলাম বড় হরণ ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির সভাপতি  ও উম্মেদ হাসান অভিভাবক সদস্য। রেলের জলাশয়ের ৩৮ শতক জায়গা মৎস্য লিজ এনেছেন হোসেন মিয়া। এছাড়া হোসেন মিয়া, আব্দুল্লাহ আল বাকি বিল্লাহ, আওয়াল মিয়া, সাবেক ইউপি সদস্য সালাম মিয়া,  দেলোয়ার হোসেন, শাহনূর ইসলাম ও হানিফ মিয়া রেলের কাছ থেকে সাড়ে শতক জায়গা বানিজ্যিক লিজ এনেছেন। কিন্তু তাদের জায়গা আশিকুল ও উম্মেদ দখলে নিয়েছেন। হোসেন মিয়ার লিজ নেওয়া জলাশয়ের জায়গায় বালু ফেলে ভরাট করছেন আশিকুল ও উম্মেদ। তবে অভিযোগ অস্বীকার করে উম্মেদ হাসান বলেন, জলাশয়ের জায়গাটি আমরা মাদ্রাসার নামে রেলওয়ের কাছ থেকে বানিজ্যিক লিজ এনেছি। জায়গাটি বালু ফেলে ভরাটের জন্য রেলওয়ের কানুনগো আমাদের মৌখিক নির্দেশ দিয়েছেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া
৭/৫/২০২৩ইং

শেয়ার করুন

Sorry, no post hare.