,
শিরোনাম:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে পূর্ব বিরোধের জের ধরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক লোক আহত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিভিন্ন ট্রেনের টিকেটসহ পাঁচ কালোবাজারি আটক, প্রায় অর্ধলক্ষ টাকা জব্দ আপেক্ষিক অর্থে বলা হয়েছে ৫০ বছর সময় লাগলেও সুষ্ঠ তদন্ত ও প্রকৃত অপরাধীদের ধরা হবে..ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইনমন্ত্রী৷ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গণসংবর্ধণার জবাবে গণপূর্ত মন্ত্রী মোকতাদির চৌধুরী এমপি মজুদদারদের জরিমানা নয়, কারাগারে পাঠানোর অনুরোধ জানাই ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদক সেবন করে অশ্লীল আচরন করায় সাতজনকে কারাদন্ড অবৈধভাবে খাল কাটা ও ব্যক্তিগত রাস্তা নির্মানের প্রতিবাদে বিজয়নগরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল বাঞ্ছারামপুরে পুকুরে মিললো কিশোরের হাত-পা বাধাঁ লাশ৷ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির উদ্যোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শীতার্ত মানুষের মধ্যে ৮০০ কম্বল বিতরণ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে চুরি করার অপবাদে যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিলের জমি থেকে অটো চালকের মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় ঘেরাও করে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন

খবর সারাদিন রিপোর্টঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ এনে ২নং মেহারী ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় ঘেরাও করে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে ভূক্তভোগী এলাকাবাসী। বৃহস্পতিবার দুপুরে বিক্ষুব্ধরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেনের নানা দুর্নীতির বিষয় তুলে ধরে বিচার চেয়ে এই বিক্ষোভ করেন। এ সময় বক্তব্য রাখেন যমুনা গ্রাম মসজিদের ইমাম হাফেজ আবুল কালাম, মেহারী ইউনিয়ন বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি এস, এম শামীম, মোঃ সুমনসহ স্থানীয় এলাকাবাসী। এ সময় ভূক্তভোগীরা বলেন, ওয়ারিশ সার্টিফিকেট, জন্মনিবন্ধন পত্র, ট্রেডলাইসেন্সসহ যেকোন জরুরী কাগজপত্র পেতে ১১শ থেকে ১২শ টাকা দিতে হচ্ছে। সরকারি ভাবে এত টাকা নেওয়ার কোন নিয়ম না থাকলেও চেয়ারম্যানের নির্দেশে ওই ইউনিয়নের উদ্যোক্তা খালেদ মাসুদসহ একটি চক্র সবার কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে যা পুরোপুরি অন্যায়। তারা সাধারণ মানুষকে জিম্মী করে বিভিন্ন চার্জের কথা বলে অতিরিক্ত টাকা বাগিয়ে নিচ্ছে। তারা আরো বলেন, বর্তমান সরকার নাগরিক সেবাকে প্রান্তিক পর্যায়ে পৌছে দিতে বহুমুখী উদ্যেগ গ্রহণ করেছে। আর এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ওই চক্রটি ইউনিয়ন পরিষদে সেবার জন্য আসা জনসাধারণকে নানাভাবে হয়রাণি করে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করছে। আমরা দ্রুত এই দূর্ভোগ থেকে পরিত্রান চাই।
অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ২নং মেহারী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন সকল অভিযোগ অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, সরকার নির্ধারিত ফি ছাড়া অতিরিক্ত কোন টাকা রাখা হয়না। আমার প্রতিপক্ষের লোকজন ষড়যন্ত্র করছে।
ওয়েব ডিজাইন ঘর

Sorry, no post hare.