,
শিরোনাম:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে প্রবাসীর স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সাড়ে ১০ ঘণ্টা পর গ্যাস সরবরাহ স্বাভাবিক সরাইলে ফসলি জমিতে মিললো অজ্ঞাতনামার লাশ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ছায়েদুল হক স্বপন ও আখাউড়ায় মনির হোসেন জয়ী কসবা ও আখাউড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ব্যালট বাক্স ছিনতাই, প্রকাশ্যে সিলমারা, কেন্দ্র দখলের চেষ্টা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন কসবা-আখাউড়ায় বিভিন্ন অভিযোগে ২২ জনের কারাদন্ড কসবায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে আহত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দুই উপজেলায় পৌঁছে দেয়া হয়েছে নির্বাচনী সরঞ্জাম জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির উদ্যোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জেলা পর্যায়ে দুর্নীতি বিরোধী রচনা ও বিতর্ক প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত অদম্য ইচ্ছাশক্তিই ভালো ফলাফলের প্রধান হাতিয়ার

বিজয়নগরে বিপুল পরিমান জাল নোট ও জাল নোট তৈরির সরঞ্জামসহ গ্রেপ্তার-৩

বিজয়নগরে বিপুল পরিমান জাল নোট ও জাল নোট তৈরির সরঞ্জামসহ গ্রেপ্তার-৩

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে ৪লাখ ৮৮ হাজার ৫০০ টাকা মূল্যমানের জাল টাকা ও জাল টাকা তৈরির সরঞ্জামসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৯ এর সিপিসি-১-এর সদস্যরা।
গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টায় উপজেলার পাহাড়পুর ইউনিয়নের কামালমোড়া গ্রামে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।
গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার আদশা গ্রামের মৃত আবদুর রশীদের ছেলে মোঃ রাসেল হাজী-(৩২), ফেনী জেলার সদর উপজেলার আকরামপুর গ্রামের আবুল কালামের ছেলে আলমগীর হোসেন-(৩৪) ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর উপজেলার পাহাড়পুর ইউনিয়নের কামালমোড়া গ্রামের সাহাব উদ্দিনের ছেলে মোঃ সানি মিয়া-(১৯)।
শুক্রবার দুপুর ১২টায় গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে পাঠানো র‌্যাব-৯-এর সিলেট ক্যাম্পের মিডিয়া অফিসার সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ মশিহুর রহমান সোহেল স্বাক্ষরিত প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সাম্প্রতিক সময়ে লক্ষ্য করা যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন স্থানে জাল নোট প্রস্তুতকারী ও বাজারজাতকারী চক্রের সদস্যরা জাল নোট প্রস্তুত করে ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ সারা দেশের বিভিন্ন মার্কেটে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে জাল টাকা প্রতারণামূলকভাবে বাজারজাত করে আসছে। এই চক্রের সদস্যরা অল্প সময়ে অধিক মুনাফার আশায় আসল টাকার ভিতর জাল টাকা মিলিয়ে লেনদেন করে সাধারণ মানুষকে ধোঁকা দিচ্ছে। এরই প্রেক্ষিতে জাল নোট প্রস্তুত ও বাজারজাতকারী চক্রের সদস্যদের গ্রেপ্তারের মাধ্যমে আইনের আওতায় আনতে র‌্যাব-৯- গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করে।
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৯-এর সিপিসি-১-ব্রাহ্মণবাড়িয়া কার্যালয় জানতে পারে যে, জাল নোট বাজারজাতকারী চক্রের তিনজন অসাধু ব্যক্তি বিজয়নগর উপজেলা এলাকায় জাল নোট লেনদেন করার উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে।
উক্ত সংবাদের প্রেক্ষিতে র‌্যাব-৯, বিজয়নগর উপজেলার কামালমোড়া গ্রামে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে বাংলাদেশী ৪ লাখ ৮৮ হাজার ৫০০ টাকা (চার লাখ আটাশি হাজার পাচঁশত টাকা) মূল্যমানের জাল টাকা ও জাল নোট তৈরির সরঞ্জামাদি (স্ক্যানার সংযুক্ত কালার প্রিন্টার, প্রিন্টারের পাউডার কালি, জাল নোট তৈরির জন্য ব্যবহৃত সাদা কাগজ, হার্ড ড্রাইভ, কী বোর্ড, মাউস, মাল্টিফ্লাগসহ ইলেকট্রিক ক্যাবল, এন্টি কাটার এবং খালি জারিকেন ইত্যাদি) সহ জাল নোট প্রস্তুতকারী ও বাজারজাতকারী চক্রের তিনজন সদস্যকে গ্রেপ্তার করে।
পরে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্যগ্রেপ্তারকৃতদেরকে বিজয়নগর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। এছাড়াও এই চক্রের অন্যান্য সদস্যদের গ্রেপ্তারে র‌্যাব-৯-এর গোয়েন্দা নজরদারি এবং চলমান অভিযান অব্যাহত থাকবে।

শেয়ার করুন

Sorry, no post hare.