,
শিরোনাম:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কোটা আন্দোলনকারীদের সাথে ছাত্রলীগের ধাওয়া পালটা ধাওয়া \ বেশ কয়েকজন আহত, ককটেল বিস্ফোরণ নবীনগরে তিন শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ নান্দনিক আবৃত্তির মধ্য দিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া মাতিয়ে গেলেন ভারতের আবৃত্তি সংস্থা শ্রুতি সালিশ সভায় চেয়ারম্যানের নির্দেশে নারীকে নির্যাতন বিজয়নগরে বর্তমান ও সাবেক ইউপি সদস্য গ্রেপ্তার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচার বিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস পালিত জনপ্রতিনিধিদের ক্ষমতার পরিধির মধ্যে থেকে এলাকার উন্নয়নে কাজ করতে হবে- গণপূর্ত মন্ত্রী বৃক্ষায়নের জায়গা না রেখে নতুন বাড়ি বা ভবন নির্মাণের অনুমতি দেয়া হবে না- গণপূর্ত মন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদক কারবারের বিরোধে নারীকে হত্যা, গ্রেফতার ৩ আখাউড়া থানার হাজত কক্ষের গ্রিল ভেঙে পালিয়ে যাওয়া আসামি ফের গ্রেপ্তার৷ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শ্বাসরোধ করে কন্যাশিশুকে হত্যা করলো মা

৪ দিনের ছুটি শেষে কর্মচঞ্চল আখাউড়া স্থলবন্দর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি শুরু।

WhatsApp Image 2024 06 20 at 3.17.28 PM

খবর সারাদিন রিপোর্ট: ঈদুল আজহা উপলক্ষে চার দিন বন্ধ থাকার পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য শুরু হয়েছে। ছুটি শেষে বন্দরের ব্যবসায়ী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পদচারণায় কর্মচাঞ্চল্য আখাউড়া স্থলবন্দর।

বৃহস্পতিবার সকালে আখাউড়া স্থলবন্দরের ট্রাফিক পরিদর্শক রুকুনুজ্জামান আবেদিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, সকাল ১০টার দিকে ৫টি গাড়িতে করে প্রায় ২৫ টন হিমায়িত মাছ রপ্তানির মাধ্যমে আমদানি-রপ্তানি শুরু হয়েছে। ঈদুল আজহার ছুটিতে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য কার্যক্রম চার দিন বন্ধ ছিল। আজ সকালে বন্দরের কার্যক্রম স্বাভাবিক হয়েছে।

আখাউড়া স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম বলেন, পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে গত রোববার থেকে বুধবার পর্যন্ত টানা চার দিন বন্দরে ব্যবসায়ী কার্যক্রম বন্ধ ছিল। আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সব ধরনের বাণিজ্য কার্যক্রম স্বাভাবিক রয়েছে।

আখাউড়া আন্তর্জাতিক ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের ওসি মো. খাইরুল আলম বলেন, পবিত্র ঈদুল আজহার ছুটিতে টানা চার দিন দুই দেশের বাণিজ্য বন্ধ ছিল। তবে ভারত-বাংলাদেশের পাসপোর্টধারী যাত্রী পারাপার অন্য দিনের মতোই স্বাভাবিক ছিল।

শেয়ার করুন

Sorry, no post hare.